মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০৫:৫৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
তানোরে ধর্ষণ চেস্টার অভিযোগে আটক ব্যক্তিকে ১৫৪ ধারায় চালান খানসামায় বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু ২৪ ঘন্টায় আরও ২৮৭ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি করোনা রোগীদের জন্য হাসপাতালে শয্যা বাড়াতে রিট দেড় লাখ টাকায় মিনুর সাথে কুলসুমীর চুক্তি রাজ কুন্দ্রার দুটি অ্যাপ থেকে ৫১ টি পর্নো ভিডিও জব্দ নিয়মিত মাদক সেবন করতেন নায়িকা একা দুমকিতে পায়রা নদী ভাঙ্গন পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক বসুরহাটে ওবায়দুল কাদেরের বাড়ির সামনে ককটেল বিস্ফোরণ, কার্তুজ-ককটেল উদ্ধার উদ্বোধনের অপেক্ষায় দৃষ্টিনন্দন আত্রাইয়ের ভূমি অফিস ‘রাতের রানী পিয়াসা ও মৌয়ের কাজ ছিল ব্ল্যাকমেইল করা’ বাসায় মিললো মদ, মডেল মৌ বলছেন ‘ডিবি এনেছিল’ এবার মোহাম্মদপুরে মদসহ মডেল মৌ আটক হেলেনার পর জননেত্রী পরিষদের দর্জি মনির এবার গ্রেপ্তার পিয়াসার বাসায় যা মিললো

৪৬ বছর ধরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সনদ লিখছেন খোরশেদ

তখন তিনি স্কুলে পড়েন। একবার বাসায় একজন অতিথি এলেন। স্থানীয় স্কুলের শিক্ষক। তাঁকে ছোট্ট একটা উপহার দিয়েছিলেন। কাগজে সুন্দর একটা নকশা এঁকে দিয়েছিলেন। সঙ্গে লিখেছিলেন তাঁর নাম। নকশারই মতো সুন্দর করে। সেটি ভীষণ মুগ্ধ করেছিল খোরশেদ আলমকে। বলেন, ‘তাঁর হাতের লেখা দেখে বিস্মিত হয়েছিলাম। যেন ছাপার হরফের চেয়েও সুন্দর! সেই থেকে আমার মধ্যে সুন্দর লেখার প্রতি একটা আলাদা আকর্ষণ তৈরি হয়।’ পরে এই ভালোবাসাই তাঁর রুটি-রুজির উৎস হয়ে যায়। ১৯৭৩ সালে পাস করেন ম্যাট্রিকুলেশন। ইন্টারমিডিয়েটে ভর্তি হন রামগঞ্জ কলেজে। কিন্তু পরের বছরই ইতি টানতে হয় পড়াশোনার। সেবার ভয়ংকর বন্যা হয়েছিল দেশে। তিনি এক বাসায় লজিং থাকতেন। থাকতেন সেই বাড়ির কাছারিঘরে। বন্যায় সে ঘর ডুবে যায়। নিরুপায় হয়ে বাড়ি চলে আসেন। তাঁর বড় ভাই ঢাকায় রেলওয়েতে চাকরি করতেন। মা-ছেলে মিলে তাঁর কাছে চলে আসেন। এর মধ্যেই একদিন চোখে পড়ে বিজ্ঞপ্তি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নেওয়া হবে সনদ লেখক।

খোরশেদ আলম সেখানে যোগ দেন ১৯৭৪ সালের ২৯ জুন। সেই থেকে প্রায় পাঁচ দশক সে দায়িত্ব পালন করছেন। মুক্তার মতো সুন্দর করে লিখে যাচ্ছেন শিক্ষার্থীদের সনদপত্র। তাঁর তিন মেয়েই পাস করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। তিনি নিজের হাতে তাঁদের সনদপত্র লিখেছেন। তবে চাকরিতে থেকে দেখে যেতে পারছেন না ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি। আজই শেষ হয়ে যাচ্ছে তাঁর আনুষ্ঠানিক কর্মজীবন। সূত্র : কালের কন্ঠ।

Please Share This Post in Your Social Media

https://twitter.com/WDeshersangbad


বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

https://www.facebook.com/Dsangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone