শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:২৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
দেশে ফিরেছেন জেএসডি সভাপতি আ স ম রব বিরামপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-১ তানোরে ভেজাল কীটনাশকে কৃষকের কপাল পুড়লো  রিশিকুলকে মডেল ইউপিতে রুপান্তর করতে চাই, চেয়ারম্যান টুলু ইভ্যালির গ্রাহকদের অর্থ ফিরিয়ে দেয়ার দায়িত্ব রাষ্ট্রকেই নিতে হবে: টিক্যাব ডেঙ্গু দুর্যোগ প্রতিরোধে সরকার পুরোপুরি ব্যর্থ : রোগী কল্যাণ সোসাইটি দেশের বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে সাইকেল পার্কিং এর সুব্যবস্থা রাখতে হবে সরকারি দখলকৃত জায়গা উচ্ছেদ করে স্থায়ীভাবে বৃক্ষরোপণের দাবি জানালো সবুজ আন্দোলন ৯০ কৃষককে কৃষি উপকরণ দিলো রাবির শিক্ষার্থীরা গণমানুষের মুক্তি সংগ্রামে সাহসী নেতা জেবেল : রীবন বড়াইগ্রাম কেন্দ্রীয় প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে পদোন্নতিপ্রাপ্ত ইউএনও’কে বিদায় সংবর্ধনা দক্ষিণাঞ্চলে কমেছে করোনা বেড়েছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা সাংবাদিক মাসুদের বিরুদ্ধে সেই দুর্ণীতিবাজ প্রধান শিক্ষকের জিডি প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে চীনের হারবিন সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি ইউনিভার্সিটির চুক্তি নোয়াখালীতে বরযাত্রীবাহী বাস দুর্ঘটনায় মৃত্যু-১, আহত-১২

ভাঙ্গুড়ায় পশুর হাটে অতিরিক্ত খাজনা আদায়ের অভিযোগ

 

ভাঙ্গুড়া(পাবনা)প্রতিনিধি ॥ পাবনার ভাঙ্গুড়ায় কোরবানির পশুর হাটে সরকারি নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে অতিরিক্ত খাজনা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে ইজারাদারদের বিরুদ্ধে। সরকার কর্তৃক নির্ধারিত খাজনা আদায়ের পরিবর্তে অবৈধভাবে অতিরিক্ত খাজনা আদায় করলেও অজ্ঞাত কারণে প্রশাসনের নজরদারী নেই। নীতিমালা অনুযায়ী, প্রতিটি গরুর জন্য ৫০০ ও ছাগলপ্রতি মাত্র ২৫০ টাকা খাজনা দেওয়ার কথা। আর তা দেবেন ক্রেতা। কিন্তু বিক্রেতার কাছ থেকেও খাজনা আদায় করা হচ্ছে। উপজেলার শরৎনগর বাজারের গরু ও ছাগলের হাটে খাজনা আদায়-সংক্রান্ত কোনো তালিকা টাঙানো হয়নি। এতে ক্রেতা-বিক্রেতারা রয়েছেন অন্ধকারে। একারণে অতিরিক্ত খাজনা দিতে বাধ্য করা হচ্ছে তাদের। ক্রেতা-বিক্রেতাদের যে রশিদ দেওয়া হচ্ছে এতে কোন খাজনার টাকা উল্লেখ নেই। শনিবার সরেজমিনে পৌর সদরের শরৎনগর বাজার গরু ও ছাগলের হাটে দেখা গেছে, হাটে প্রচুর গরু-ছাগল ও ক্রেতা-বিক্রেতার সমাগম হয়েছে। হাটে পশুর দাম তুলনামূলক কম থাকায় মানুষ উৎসবমূখর ভাবে কোরবানির পশু ক্রয় করছেন। হাটে পুলিশ নকল টাকা সনাক্তের মেশিন দিয়ে টাকা পরীক্ষা ও গর্ভবতী গাভী পরিক্ষার জন্য পশু ডাক্তার নিযুক্ত করা হয়েছে। গরু ক্রেতা তোফজ্জল আলী, আব্দুল হান্নান, রইচ উদ্দিন জানান, ইজারাদাররা প্রতিগরু থেকে ৬০০ টাকা করে খাজনা নিলেও তারা রশিদে নির্ধারিত খাজনার জায়গা থাকলেও টাকার অঙ্ক লিখা হচ্ছেনা। বিক্রেতা আদম আলী, জিনাত আলী, ছানোয়ার হোসেন জানান, তাদের কাছথেকে ইজারাদাররা কোন রসিদ না দিয়ে প্রতি গরু থেকে ১০০ থেকে ২০০ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। ক্রেতা মোকছেদ আলী জানান, ৭ হাজার ১০০ টাকায় একটি খাসি ছাগল কিনে ৩শ’ টাকা খাজনা দিতে হয়েছে। ছাগল বিক্রেতা দৌলত আলী জানান, রসিদ না দিয়ে ৫০ টাকা নিয়েছেন । ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়ের কাছ থেকেই অতিরিক্ত টাকা আদায় করা হচ্ছে। এ বিষয়ে তারা প্রতিবাদ করলেও কোনো লাভ হয়নি। তবে গরুর হাটে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসানো হলে এমনটি হবে না বলে মনে করেন তারা। অতিরিক্ত খাজনা আদায়ের অভিযোগে শরৎনগর হাটের ইজারাদার সামছুল হোসেন বলেন, এই হাট এক কোটি ৮০ লাখ ৫০ হাজার টাকা ডেকে নিয়েছি। তাই ঈদের হাট গুলিতে একটু বেশি নিয়ে থাকি। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আশরাফুজ্জামান বলেন, কোরবানি পশুর হাটে অতিরিক্ত টোল আদায়ের সুযোগ নেই। হাট ইজারা গ্রহীতাদের ডেকে সতর্ক করা হয়েছে। তবে এ ধরনের অভিযোগ পেলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ছবি:- ক্যাপশন:- ভাঙ্গুড়া(পাবনা) : পাবনার ভাঙ্গুড়া পৌর সদরের শরৎনগর বাজার গরু হাট। (২) : গরু ও মহিষ ক্রয় বিক্রেয়ের রশিদ বই। (৩) : ছাগল ও ভেড়া ক্রয় বিক্রেয়ের রশিদ বই।

Please Share This Post in Your Social Media

https://twitter.com/WDeshersangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

All rights reserved © deshersangbad.com 2011-2021
Design And Developed By Freelancer Zone