মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৪৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
মাহফুজুর রহমানকে ছেড়ে দ্বিতীয় বিয়ে করলেন ইভা রহমান তানোর পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে গাছ নিধনের অভিযোগ নড়াইলে ডিবি পুলিশের অভিযানে ফেনসিডিল সহ আটক ১ আরএমপি’র সাইবার ক্রাইম ইউনিটের হাতে ভুয়া লেফটেন্যান্ট কর্ণেল আটক বরিশালে অসহায় মানুষের মাঝে চেক বিতরণ সাপাহারে দুর্গোৎসবকে সামনে রেখে প্রতিমা তৈরীর কাজ চলছে রাজপথে আন্দোলন ছাড়া দাবী আদায় হবে না : যুব জাগপা ভূমি দখলবাজ ও সন্ত্রাসীদের অত্যাচার  কুড়িগ্রামের উলিপুরে বাড়ি ভিটে দান করে দিতে চান এক পরিবার দুর্গাপূজা উপলক্ষে ৩ কোটি টাকা অনুদান দিলেন প্রধানমন্ত্রী সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলব গণমাধ্যমে গুরুত্ব পাওয়া নিয়ে তথ্যমন্ত্রীর প্রশ্ন সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলবের চিঠি অপ্রত্যাশিত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বাস্থ্যের গাড়িচালক মালেকের ১৫ বছর কারাদণ্ড ভোটকেন্দ্রে গোলাগুলিতে আ.লীগ নেতাসহ নিহত ২ কী অভিযোগে ব্যাংক হিসাব তলব, জানতে চান সাংবাদিকরা রাস্তা-ভবন নির্মাণে ইটের গুণগত মান নিশ্চিতের নির্দেশ

গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, হুমকির মুখে নীলকুঠি আশ্রয়ণ প্রকল্প

গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি: গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। গাইবান্ধা সদর উপজেলার কামারজানি, মালিবাড়ী, ঘাগোয়া, মোল্লারচর ইউনিয়ন, সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তারাপুর, বেলকা,হরিপুর,চন্ডিপুর,কাপাসিয়া,শ্রীপুর ইউনিয়ন, ফুলছড়ি উপজেলার ফুলছড়ি, গজারিয়া, খাটিয়ামারী ও সাঘাটা উপজেলার হলদিয়া,ফজলুপুরসহ ১৭টি ইউনিয়ন বন্যায় প্লাবিত হয়েছে। এসব এলাকার ৫০ হাজার মানুষ পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। ব্রহ্মপুত্র,ঘাঘট ,যমুনা, করতোয়া, তিস্তা নদীর পানি হু হু করে বৃদ্ধি পাচ্ছে। ৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকালে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি ফুলছড়ি পয়েন্টে ৫২ সেন্টিমিটার এবং ঘাঘট নদীর পানি শহরের নতুন ব্রিজ এলাকায় বিপদসীমার ২০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যায় জেলার চার উপজেলার ১ হাজার ৫১৫ হেক্টর জমির রোপা আমন ও সবজির ক্ষেত পানি নিচে তলিয়ে গেছে। বন্যা কবলিত এলাকায় বিশুদ্ধ পানির সংকট দেখা দিয়েছে। ফুলছড়ি উপজেলার সাবেক হেড কোয়ার্টার থেকে সামনে যমুনা নদীর দিকে তাকালেই চোখে পড়বে নীলকুঠি আশ্রয়ণ প্রকল্প। চারপাশে থৈ থৈ পানি। দুটি ব্রিজসহ আশ্রয়ণ প্রকল্পের রাস্তা এখন পানির নিচে। ফুলছড়ি উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শামসুল আলম সরকার বলেন, বন্যায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ২ শতাধিক মানুষ। তাদের যোগাযোগের জন্য নৌকা ছাড়া বিকল্প কোনো যান নাই। বালু দিয়ে তৈরি এই আশ্রয়ণ পানির শ্রোতে কখন ধসে যাবে সেই আতঙ্কে আছে সেখানকার বাসিন্দারা। গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মোখলেছুর রহমান বলেন, পানি বাড়লেও বড় বন্যা হওয়ার আশঙ্কা নেই। কয়েক দিনের মধ্যই পানি কমতে শুরু করবে। গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক মো. আব্দুল মতিন বলেন, বন্যা কবলিত চার উপজেলায় দুই লক্ষ টাকা ও ৮০ মেট্রিক চাল বরাদ্ধ করা হয়েছে। শিগগিরই তা বিতরণ করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

https://twitter.com/WDeshersangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

All rights reserved © deshersangbad.com 2011-2021
Design And Developed By Freelancer Zone