শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৫২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
ইউএনওর মতো নিরাপত্তা পাবেন উপজেলা চেয়ারম্যান সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলবের ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ প্রেস ক্লাবের বাতিল হলো যে ১০ দৈনিক পত্রিকার ডিক্লারেশন নীরবতারও নিজস্ব অর্থ এবং আলাদা মাত্রা রয়েছে: শ্রাবন্তী জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠনের দাবি চাকরির বয়স ৩২ বছর করার দাবি জিএম কাদেরের জিয়াউর রহমান সেক্টরের অধিনায়ক, সেক্টর কমান্ডার নয়: প্রধানমন্ত্রী লালপুরে শিশু ধর্ষণের চেষ্টা ওজোন স্তর ধ্বংসে উন্নত রাষ্ট্রগুলো দায়ী: সবুজ আন্দোলন বগুড়ায় ট্রাক উল্টে প্রাণ গেলো শ্রমিকের তানোর আওয়ামী লীগে ফের প্রাণচাঞ্চল্য বাঘায় পদ্মায় ডুবলো  নৌকা তলিয়ে গেল বাড়ির মালামাল দুর্নীতিবাজ মাফিয়া সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে লাভ বাংলাদেশ দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলবে : মিজানুর রহমান চৌধুরী গাইবান্ধায় কোটি টাকা মূল্যের ৬টি তক্ষক উদ্ধার লালপুরে সাবেক ইউপি সদস্যের পা ভেঙ্গে দিলেন বর্তমান ইউপি সদস্য

২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরনে লক্ষ্মীপুরে দোয়া মাহফিল

ভয়াল ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত শহীদদের স্মরনে লক্ষ্মীপুরে দোয়া মাহফিল করা হয়েছে। বুধবার (২১ আগষ্ট) বিকেলে লক্ষীপুর-২ (রায়পুর ও সদরের একাংশ) আসনের সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের উদ্যোগে সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের বিভিন্ন মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল করা হয়।

এসব মিলাদ মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন এমপির প্রতিনিধি ও লক্ষ্মীপুর জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আদনান চৌধুরীসহ স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও সকল সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীরা।

দোয়া মাহফিলে ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলায় আইভী রহমানসহ নিহত সকলের রূহের মাগফেরাত কামনা করা হয়। এছাড়াও লক্ষ্মীপুর পৌর শহরের দায়রা বাড়ী জামে মসজিদেও এমপির উদ্যোগে দোয়া মাহফিল করা হয়।

২১ আগস্ট ভয়াবহ গ্রেনেড হামলায় আওয়ামী লীগের সমাবেশে হত্যাকাণ্ডের পর দলটির পক্ষ থেকে মামলা দিতে গেলে পুলিশ সেই মামলা নেয়নি। বরং পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করে। এজাহার সাজানো হয় ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের পরামর্শে। জঙ্গিরা বারবার শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করেছে—এটা জানা থাকা সত্ত্বেও এ হামলার পেছনে জঙ্গিরা থাকতে পারে সে রকম বক্তব্য ছিল না সাদামাটা ওই এজাহারে। এরপর তদন্তের সময় ‘জজ মিয়া নাটক’ও সাজানো হয়।

বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাসের অন্যতম ভয়াল হামলার ঘটনাটি ঘটে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের সমাবেশে চালানো হয় ভয়ংকর গ্রেনেড হামলা। ওই হামলায় নিহত হয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ ২৪ জন। তাদের মধ্যে ছিলেন তখন মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী আইভি রহমান।

আহত হন শেখ হাসিনাসহ ৩৩৮ জন দলীয় নেতাকর্মী-সমর্থক, কর্তব্যরত সাংবাদিক, পুলিশ ও নিরাপত্তাকর্মী। শেখ হাসিনার বাঁ কানের শ্রবণক্ষমতা পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যায়। সেদিন আহত ঢাকার তত্কালীন মেয়র মোহাম্মদ হানিফ গ্রেনেডের স্প্লিন্টারের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় পরে অসুস্থ হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। স্প্লিন্টারবিদ্ধ ব্যক্তিরা এখনো যন্ত্রণা বয়ে বেড়াচ্ছে।

 

Please Share This Post in Your Social Media

https://twitter.com/WDeshersangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

All rights reserved © deshersangbad.com 2011-2021
Design And Developed By Freelancer Zone