শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৫৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
দেশে ফিরেছেন জেএসডি সভাপতি আ স ম রব বিরামপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-১ তানোরে ভেজাল কীটনাশকে কৃষকের কপাল পুড়লো  রিশিকুলকে মডেল ইউপিতে রুপান্তর করতে চাই, চেয়ারম্যান টুলু ইভ্যালির গ্রাহকদের অর্থ ফিরিয়ে দেয়ার দায়িত্ব রাষ্ট্রকেই নিতে হবে: টিক্যাব ডেঙ্গু দুর্যোগ প্রতিরোধে সরকার পুরোপুরি ব্যর্থ : রোগী কল্যাণ সোসাইটি দেশের বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে সাইকেল পার্কিং এর সুব্যবস্থা রাখতে হবে সরকারি দখলকৃত জায়গা উচ্ছেদ করে স্থায়ীভাবে বৃক্ষরোপণের দাবি জানালো সবুজ আন্দোলন ৯০ কৃষককে কৃষি উপকরণ দিলো রাবির শিক্ষার্থীরা গণমানুষের মুক্তি সংগ্রামে সাহসী নেতা জেবেল : রীবন বড়াইগ্রাম কেন্দ্রীয় প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে পদোন্নতিপ্রাপ্ত ইউএনও’কে বিদায় সংবর্ধনা দক্ষিণাঞ্চলে কমেছে করোনা বেড়েছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা সাংবাদিক মাসুদের বিরুদ্ধে সেই দুর্ণীতিবাজ প্রধান শিক্ষকের জিডি প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে চীনের হারবিন সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি ইউনিভার্সিটির চুক্তি নোয়াখালীতে বরযাত্রীবাহী বাস দুর্ঘটনায় মৃত্যু-১, আহত-১২

শোকযাত্রা ও শ্রদ্ধার্পণে হাসিমুখে কুবি রেজিস্ট্রার!

কুবি প্রতিনিধি:
একরকম হেসে-খেলে, ভাবগাম্ভীর্যতা পরিহার ও নানাবিধ অব্যবস্থাপনার মাধ্যমে দায়সারাভাবে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) জাতীয় শোক দিবসের বিলম্বিত শোকযাত্রা ও শ্রদ্ধার্পণ পালিত হয়েছে।
শোকযাত্রা ও শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণকালে খোদ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মোঃ আবু তাহেরকেই হাস্যরত অবস্থায় দেখা গেছে বলে অভিযোগ ওঠেছে। বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার আয়োজিত শোক দিবসের অনুষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক সূত্রে জানা যায়, ১৫ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে ঈদুল আজহার ছুটি থাকায়  আজ ২২ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অংশগ্রহণে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শোকাযাত্রা ও বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণের আয়োজন করা হয়। শোকযাত্রাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
অভিযোগ ওঠেছে, এসময় ধারণ করা বেশকিছু ছবি ও ভিডিওতে শোকাযাত্রার অগ্রভাগে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের পাশে রেজিস্ট্রারসহ আরও কয়েকজনকে হাসতে দেখা যায়। বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যকে ‘কেউ হাসবা না’ বলতেও শোনা যায় এসময়।
শোকযাত্রা শেষে পুষ্পাঞ্জলি অর্পণের সময়কালে ধারণ করা বিভিন্ন ছবিতেও রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আবু তাহেরসহ কয়েকটি বিভাগের শিক্ষকদেরও হাস্যোজ্জ্বল অবস্থায় দেখা যায়। এতে অনেকেই বিব্রতবোধ করেন।
শুধু তাই নয়, গত ১৫ আগস্ট ধানমণ্ডির ৩২ নাম্বারে বঙ্গবন্ধুর বাসভবনে ফুল দেওয়ার সময়ও রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আবু তাহেরকে হাস্যরত অবস্থায় দেখা যায়। এসব ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার সৃষ্টি হয়। জাতীয় শোক দিবসের মতো বেদনাবহ ও গাম্ভীর্যপূর্ণ অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিভাবক পর্যায়ের একজন শিক্ষকের মুখে হাসি বেমানান ও দুঃখজনক বলে মন্তব্য করেন অনেকে।
অভিযোগের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার (চলতি দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো: আবু তাহেরের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘শোক দিবস পালন আসলে মনের ভেতরগত বিষয়। দুএকটা ছবিতে কী আসলো সেটা ধর্তব্য না। পুষ্পাঞ্জলি অনুষ্ঠান চলাকালে কখন কে কিভাবে ছবি তুলেছে সেটা বলতে পারি না। কেউ অহেতুক সমালোচনা করলে করুক। সমালোচনা সহ্য করা অভ্যাস হয়ে গেছে।’
এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ সমন্বয়কারী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফার্মেসি বিভাগের অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহম্মেদ জানান, ‘জাতীয় শোক দিবস নিঃসন্দেহে একটি ভাবগাম্ভীর্যের আবহ বহন করে। এদিনের কোনো অনুষ্ঠানে কেউ হাসাহাসি করবে সেটা কাম্য নয়। তিনি (অধ্যাপক আবু তাহের) বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন কর্তাব্যক্তি হিসেবে তার সাথে এটা যায় না। তবে তিনি কোন অবস্থায় এটা করেছেন তিনিই ভালো বলতে পারবেন।’

Please Share This Post in Your Social Media

https://twitter.com/WDeshersangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

All rights reserved © deshersangbad.com 2011-2021
Design And Developed By Freelancer Zone