মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:০৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
মাহফুজুর রহমানকে ছেড়ে দ্বিতীয় বিয়ে করলেন ইভা রহমান তানোর পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে গাছ নিধনের অভিযোগ নড়াইলে ডিবি পুলিশের অভিযানে ফেনসিডিল সহ আটক ১ আরএমপি’র সাইবার ক্রাইম ইউনিটের হাতে ভুয়া লেফটেন্যান্ট কর্ণেল আটক বরিশালে অসহায় মানুষের মাঝে চেক বিতরণ সাপাহারে দুর্গোৎসবকে সামনে রেখে প্রতিমা তৈরীর কাজ চলছে রাজপথে আন্দোলন ছাড়া দাবী আদায় হবে না : যুব জাগপা ভূমি দখলবাজ ও সন্ত্রাসীদের অত্যাচার  কুড়িগ্রামের উলিপুরে বাড়ি ভিটে দান করে দিতে চান এক পরিবার দুর্গাপূজা উপলক্ষে ৩ কোটি টাকা অনুদান দিলেন প্রধানমন্ত্রী সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলব গণমাধ্যমে গুরুত্ব পাওয়া নিয়ে তথ্যমন্ত্রীর প্রশ্ন সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলবের চিঠি অপ্রত্যাশিত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বাস্থ্যের গাড়িচালক মালেকের ১৫ বছর কারাদণ্ড ভোটকেন্দ্রে গোলাগুলিতে আ.লীগ নেতাসহ নিহত ২ কী অভিযোগে ব্যাংক হিসাব তলব, জানতে চান সাংবাদিকরা রাস্তা-ভবন নির্মাণে ইটের গুণগত মান নিশ্চিতের নির্দেশ

শরীয়তপুরে মা ইলিশ বহনের অপরাধে তিন পুলিশ বরখাস্ত

শরীয়তপুর প্রতিনিধি:
নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অভিযান চলাকালীন সময় মা ইলিশ বহনের দায়ে শরীয়তপুরে তিন পুলিশ সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে। বুধবার (১৬ অক্টোবর) রাত পৌনে ১২টার দিকে পুলিশ লাইন্সের অফিসে বসে পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন এ বরখাস্তের আদেশে স্বাক্ষর করেন বলে জানাগেছে। বরখাস্ত আদেশ প্রাপ্ত পুলিশ সদস্যরা হলেন শরীয়তপুর পুলিশ লাইন্সের মোটরযান বিভাগে দায়িত্বরত এস.আই মন্টু মিয়া, কনেস্টবল হৃদয় ও সনজিত।
জানাযায়, শরীয়তপুরের প্রশাসনের পাশাপাশি শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু’র নির্দেশে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ ও সাধারণ মানুষ মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে অংশগ্রহণ করে। অভিযান চলাকালীন সময় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে শরীয়তপুরের বিভিন্ন সড়ক দিয়ে মা ইলিশ বহনের মহোৎসব চলছে শুনে দলীয় কিছু নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ বিভিন্ন সড়কে অবস্থান নেয়। তারই ধারাবাহিতকায় বুধবার রাত ১১টার পর থেকে পুলিশ লাইন্স সংলগ্ন পানি উন্নয়ন বোর্ড সড়ক দিয়ে কয়েকজন পুলিশ সদস্য মা ইলিশ বহন করে নিয়ে যাচ্ছিল এমন খবর পায় তারা। তখন দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের হাতে ধরা পড়ে ওই পুলিশ সদস্যরা। খবর পেয়ে জেলা প্রশাসন এবং পুলিশ প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণ ঘটনাস্থলে যায়। তখন পুলিশ লাইন্সের আবাসিক পুলিশ পরিদর্শক অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের জিম্মায় গ্রহণ করে পুলিশ লাইন্সে নিয়ে যায়। পুলিশ লাইন্সে বসেই অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বরখাস্ত আদেশে স্বাক্ষর করেন পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন। সেখান থেকে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহাবুর রহমান শেখ মা ইলিশ জব্দ করে বিভিন্ন এতিম খানায় প্রদান করেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আল মামুন শিকদার, পুলিশ সুপার কার্যালয়ের ডিআইও-১ আজাহারুল ইসলাম ও পালং থানার ওসি মো. আসলাম উদ্দিন প্রমূখ। পুলিশ কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতেই বরখাস্ত হওয়া এস.আই মন্টু মিয়ার কাছ থেকে টিআই জামাল মীর’কে মোটরযান শাখার দায়িত্ব বুঝে নিতে নির্দেশ করেন পুলিশ সুপার।
এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন বলেন, আমি পুলিশ সদস্যদের দায়িত্ববান হতে অনেক বুঝিয়েছি। মা ইলিশ রক্ষা করা জাতীয় ইস্যু। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সকল নেতাকর্মীগণ ও সাধারণ মানুষ সচেতন হয়েছে। কিন্তু পুলিশ সদস্যরা আমার কথা বুঝতে পারেনি। যারা নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেছে তাদের পুলিশে চাকুরি করার যোগ্যতা নাই। আজ যারা ইলিশ বহন করেছে তাদের বরখাস্ত করা হয়েছে। উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা হয়েছে। তারা যেন ৬০ কার্য দিবসের মধ্যে বাড়ি চলে যেতে পারে সেই ব্যবস্থাও করা হবে।
এদিকে পুলিশ সদস্য বরখাস্ত হওয়ায় শরীয়তপুরের সাধারন মানুষ সন্তোষ প্রকাশ করেছে।

১নং ছবির ক্যাপশন:
শরীয়তপুরে মা ইলিশ বহনের অপরাধে বরখাস্তকৃত এস.আই মন্টু মিয়া ও জব্দকৃত মাছ।

Please Share This Post in Your Social Media

https://twitter.com/WDeshersangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

All rights reserved © deshersangbad.com 2011-2021
Design And Developed By Freelancer Zone