বুধবার, ০৪ অগাস্ট ২০২১, ১০:০৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
দেশে এলো অ্যাস্ট্রাজেনেকার আরো ৬ লাখ ডোজ টিকা দর্জি মনিরের ফটোশপ তেলেসমাতি, বড় নেতা সেজে চাঁদাবাজি উচ্চাভিলাষী নষ্ট নারীতে সমাজ আজ কলুষিত খেলা শেষে টাইগারদের সাথে হাতও মেলালেন না অসিরা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ভাগ্নের ‘দুর্নীতি’: তদন্ত চেয়ে রিট টাইগারদের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন টি-টোয়েন্টিতে অজিদের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম জয় দিনাজপুর বিরামপুরে উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নতুন এ্যাম্বুলেন্স উদ্বোধন নড়াইলে ডিসি মোহাম্মদ হাবিবুর রহমানের নির্দেশে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান ২৫ হাজার টাকা জরিমানা   এমপি ফারুক চৌধুরীর খাদ্য সামগ্রী বিতরণ রাজধানীতে ৩৫৪ গ্রেপ্তার, ৫৩২ গাড়িকে জরিমানা করোনায় আরো ২৩৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৫৭৭৬ বগুড়ার কাপড় মোড়ানো নবজাতকের লাশ উদ্ধার ইন্দুরকানীতে পানিতে ডুবে ভাই বোনসহ তিন জনের মৃত্যু জলাবদ্ধতার ফলে খানসামার রামনগরে পুকুরে পরিণত ৫০ বিঘা আবাদী জমি, ব্যাহত চাষাবাদ

লক্ষ্মীপুরে ছাত্রকে পিটিয়ে রক্তাক্ত : শিক্ষক কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক: লক্ষ্মীপুরে এজাজ রায়হান (১৩) নামে অষ্টম শ্রেণির এক মাদ্রাসা ছাত্রকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করার ঘটনায় শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শিক্ষক ছায়েদুর রহমানকে আসামি করে আহত ছাত্রের বাবা আরিফ হোসেন সদর মডেল থানায় এ মামলা করেন। পরে তাকে লক্ষ্মীপুর আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে জেলা শহরের উত্তর তেমুহনী এলাকার তানযীমুল মিল্লাত একাডেমি থেকে আটক শিক্ষককে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

এরআগে বুধবার বিকেলে এ ঘটনায় রায়হানের ফুফা ও জেলা পরিষদের সদস্য মাহবুবুল হক মাহবুব সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। এ প্রেক্ষিতে বিকেলেই পুলিশ পাঠিয়ে ওই শিক্ষককে আটক করা হয়েছিল। একই সময় পাঠদানের অনুমতি না থাকা শর্তেও কার্যক্রম অব্যাহত থাকায় মাদারাসা বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

আহত ছাত্র রায়হান সদর উপজেলার চররুহিতা ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়াডের প্রবাসী আরিফ হোসেনের ছেলে ও তানযীমুল মিল্লাত একাডেমির ছাত্র। অভিযুক্ত ছায়েদ একই মাদ্রাসার শিক্ষক।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৫ দিনে জ্বরে আক্রান্ত ছিল রায়হান। সুস্থ হলে বুধবার সে মাদ্রাসায় আসে। মাদ্রাসায় না আসার কারণ জানতে চাইলে শিক্ষক ছায়েদকে জ্বরের কথা জানায়। কিন্তু শিক্ষক তা কর্ণপাত করেননি। শাস্তি হিসেবে কুমড়া চেঙ্গি (পায়ের নিচ দিয়ে কান ধরে রাখা) দিতে বলে। এটা দিতে অস্বীকৃতি জানালে ওই শিক্ষক লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে তাকে গুরুতর আহত করে। এতে তার হাত-পিঠসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে রক্তাক্ত জখম হয়। মাদরাসা শেষে বাসায় ফিরলে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় দেখে তাকে সদর হাসপাতালে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

জেলা পরিষদের সদস্য মাহবুবুল হক মাহবুব বলেন, ইউএনও’র পরামর্শে আমরা শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা করেছি। আমরা ওই শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

সদর মডেল থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোসলেহ উদ্দিন বলেন, ছাত্রকে পেটানোর ঘটনায় শিক্ষকের বিরদ্ধে মামলা হয়েছে। দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শফিকুর রিদোয়ান আরমান শাকিল বলেন, ছাত্রকে পেটানোর ঘটনার অভিভাবককে থানায় মামলা করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ওই মাদ্রাসায় পাঠদানের কোন অনুমতি নেই। তা শর্তেও তারা পাঠ্য কার্যক্রম চালাচ্ছিল। এজন্য মাদ্রাসার কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

https://twitter.com/WDeshersangbad


বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

https://www.facebook.com/Dsangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone