বুধবার, ০৪ অগাস্ট ২০২১, ০৯:৩৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
দেশে এলো অ্যাস্ট্রাজেনেকার আরো ৬ লাখ ডোজ টিকা দর্জি মনিরের ফটোশপ তেলেসমাতি, বড় নেতা সেজে চাঁদাবাজি উচ্চাভিলাষী নষ্ট নারীতে সমাজ আজ কলুষিত খেলা শেষে টাইগারদের সাথে হাতও মেলালেন না অসিরা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ভাগ্নের ‘দুর্নীতি’: তদন্ত চেয়ে রিট টাইগারদের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন টি-টোয়েন্টিতে অজিদের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম জয় দিনাজপুর বিরামপুরে উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নতুন এ্যাম্বুলেন্স উদ্বোধন নড়াইলে ডিসি মোহাম্মদ হাবিবুর রহমানের নির্দেশে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান ২৫ হাজার টাকা জরিমানা   এমপি ফারুক চৌধুরীর খাদ্য সামগ্রী বিতরণ রাজধানীতে ৩৫৪ গ্রেপ্তার, ৫৩২ গাড়িকে জরিমানা করোনায় আরো ২৩৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৫৭৭৬ বগুড়ার কাপড় মোড়ানো নবজাতকের লাশ উদ্ধার ইন্দুরকানীতে পানিতে ডুবে ভাই বোনসহ তিন জনের মৃত্যু জলাবদ্ধতার ফলে খানসামার রামনগরে পুকুরে পরিণত ৫০ বিঘা আবাদী জমি, ব্যাহত চাষাবাদ

ভূঞাপুরে বালুঘাট নিয়ে আ’লীগের দু’গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত ১৫, এলাকায় চরম উত্তেজনা ও আতঙ্ক

 

মোঃ নাসির উদ্দিন, ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ দীর্ঘ কয়েক বছর যাবৎ ধরেই অবৈধ বালুঘাট নিয়ে দু’পক্ষই নিজেদের দখলে নেয়ার চেষ্টায় ও আধিপত্য বিস্তার করাকে কেন্দ্র করে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে বিরোধ হয়ে আসছিল আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে। উপজেলার নিকরাইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আ’লীগের সভাপতি মো. আব্দুল মতিন সরকার গ্রুপ ও নিকরাইল ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও যুবলীগের আহ্বায়ক ২ নং ওয়ার্ডের মেম্বার নূর আলম মন্ডল (নূহু)।

এরই ধারাবাহিকতায় নিকরাইল ইউনিয়নের সিরাজকান্দি বাজার সংলগ্ন অবৈধ বালুর ঘাট নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে আ’লীগের উভয় গ্রুপের মধ্য রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে দু’পক্ষের ১৫ জন আহত হয়। তার মধ্য মতিন সরকার গ্রুপের ৯ জন ও নূহু মেম্বারের গ্রুপের ৬ জন। পরে আহতদের ভূঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্য ৪ জন গুরুত্বর আহত হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য টাঙ্গাইল ২৫০ শয্যা জেনারেল মেডিকেল হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। বাকিদের ভূঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও স্থানীয় ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এর আগে সকাল ১০ টার দিকে একই স্থানে মতিন সরকারের গ্রুপ নূহু গ্রুপের কয়েক জনকে হাতুড়ি ও ইট-পাটকেল ছুড়ে ৩ জনকে আহত করেন। এ খবর শুনে নূহু গ্রুপ দুপুরের দিকে বাজার এলাকায় অবস্থান নিলে আবার সংঘর্ষ লাগে।

বালু ঘাট দখল নিয়ে দু’গ্রুপের সংঘর্ষের খবর পেয়ে ভূঞাপুর থানা পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে পুলিশের উপস্থিতেই থেমে থেমে সংঘর্ষে হয়। এদিকে, গতকাল বৃহস্পতিবার পুলিশ এ ঘটনার পরিবেশ শান্ত করলেও সন্ধ্যা থেকে পুরো এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সরেজমিনে শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরের দিকে সংঘর্ষের ঘটনাস্থল সিরাজকান্দি বাজার, বালু ঘাট ঘুরে ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, এ বালু ঘাট নিয়ে দু’পক্ষের পাল্টাপাল্টি লড়াই হয়ে থাকে। গত কয়েকদিন ধরেও চলছে এমন পরিস্থিতি। তাদের এ সংঘর্ষের কারণে আমরা এলাকাবাসীরা আতঙ্কের মধ্য রয়েছি। সন্দেহ হলেই হাতুড়ি নিয়ে আসে মারপিট করতে। এমন অবস্থায় তারা বলেন, রক্তক্ষয়ী মারামারি না করে দ্রুত সময়ে সমাধানে আসুক তারা। না হলে এলাকায় বড় ধরণের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সিরাজকান্দি বালুঘাট নিয়ে নিকরাইল ইউপি চেয়ারম্যান মতিন সরকার ও ইউপি সদস্য নুর আলম (নূহু মেম্বার) এর মধ্যে বিরোধ চলছিল। বৃহস্পতিবার মতিন সরকারের লোকজন সিরাজকান্দি বালুঘাটের দখল নিতে গেলে নুর আলম (নূহ মেম্বার) গ্রুপ বাধা দিলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
এ বিষয়ে বালু ব্যবসায়ী নূর আলম (নূহু মেম্বার) বলেন, মনির সরকার তার বাহিনী নিয়ে আমার বালুঘাট দখল করতে আসে। এছাড়াও বালুঘাটকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যান মতিন সরকারের ভাই মোমিন সরকারসহ কয়েকজন মিলে গতকাল বৃহস্পতিবার দফায় দফায় দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সিরাজকান্দি বাজারের কয়েকটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়। এ সময় বাঁধা দিতে গেলে তাদের পক্ষের কয়েকজন আহত হয়। এর আগে সকালে আমার পক্ষের ৯ জনকে আহত করেন। তাদের মধ্য ৫ জন গুরুত্বর আহত হয়েছে।

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান মতিন সরকার বলেন, সকালে যে ঘটনা ঘটেছে এতে আমার পক্ষের কয়েকজন কে নূহু মেম্বারের লোকজন ইট পাটকেল ছুঁড়ে। সেই পাটকেল পুড়িয়ে আমার লোকজন ওদেরকে পাল্টা আক্রমণ করলে সংঘর্ষ বাধে। এতে করে নূহু মেম্বারের কয়েকজন আহত হয়। এর পর দুপুরে আবারোও দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে আমার পক্ষের ৯ জন গুরুত্বর আহত হয়।

এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রাশিদুল ইসলাম জানান, উপজেলার সিরাজকান্দি বাজারে বালু ঘাটে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় প্রভাবশালী দু’গ্রুপ মুখোমুখি অবস্থান নেয়। পরে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে অন্তত ১৫ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তিনি আরোও জানান, দু’পক্ষই মামলার জন্য দরখাস্ত করেছে। এখনো মামলা রুজু হয়নি। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে, তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

https://twitter.com/WDeshersangbad


বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

https://www.facebook.com/Dsangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone