সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ১০:০১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
‘রাতের রানী পিয়াসা ও মৌয়ের কাজ ছিল ব্ল্যাকমেইল করা’ বাসায় মিললো মদ, মডেল মৌ বলছেন ‘ডিবি এনেছিল’ এবার মোহাম্মদপুরে মদসহ মডেল মৌ আটক হেলেনার পর জননেত্রী পরিষদের দর্জি মনির এবার গ্রেপ্তার পিয়াসার বাসায় যা মিললো মডেল পিয়াসা আটক প্রায় ৯০ শতাংশ শ্রমিক কাজে যোগ দিয়েছেন নাটোরের সাংসদ শিমুলের বিরুদ্ধে নিরাপত্তা চেয়ে  রাবি অধ্যাপকের জিডি বেগমগঞ্জে চাঁদাবাজির অভিযোগে এসআই তৌহিদ স্ট্যান্ড রিলিজ! ‘লকডাউনে শিল্পকারখানা খুললে আইনানুগ ব্যবস্থা’ ৪১তম বিসিএস প্রিলির ফল প্রকাশ! উত্তীর্ণ হয়েছেন যারা… তানোরে ছিন্নমুল মানুষের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণ শিবপুরে মৃত্যুর ২ মাস পর কবর থেকে লাশ উত্তোলন বেশি দামে সার বিক্রি ও মেয়াদ উত্তীর্ণ কীটনাশক বিক্রি করায় ৩ ব্যবসায়ীর জরিমানা অভয়নগরে মসজিদে উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুদান প্রদান

বগুড়ার গাবতলী দূর্গাহাটায় প্রতারণা শিকার কৃষক পরিবার

বগুড়া প্রতিনিধিঃ বগুড়ার গাবতলী দূর্গাহাটা লালখাপাড়া গ্রামের কৃষক বাবর আলী আকন্দ কাতার দেশে গিয়ে চাকুরী না পেয়ে প্রতারণা শিকার হয়ে দেশে ফিরে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।
অভিযোগ সূত্র জানায়, গত ১বছরপূর্বে লালখাপাড়া গ্রামের মৃত তজিবর আকন্দের পুত্র দরিদ্র কৃষক বাবর আলী’কে কাতার দেশে ‘বেশী টাকা বেতনের’ চাকুরী প্রলোভন দেয় বিবাদী একই গ্রামের সাজু ও তাঁর পিতা আব্দুল বারী এবং সাজু’র স্ত্রী শামীমা আক্তার। এরপর বাবর আলী বিদেশ যাওয়ার জন্য সাজুর নিকট নগদ ৫লক্ষ টাকা প্রদান করলে তারা বাবর’কে ২মাসপর কাতার দেশে পাঠাইয়া দেয়। সেখানে বারব আলী দূীর্ঘ ১১মাসেও কোন কাজ-কর্ম বা চাকুরী না পেয়ে দিশাহারা ও কর্ম জীবনযুদ্ধে পরাজিত হয়ে আবারো দেশে ফিরে আসেন। অবশেষে বাবর আলী বাব বার সাজু পরিবারের নিকট থেকে টাকা ফিরত চাইলে তারা (বিবাদীপক্ষ) তালবাহানা ও বিভিন্নভাবে হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছে। এ ঘটনায় স্থানীয় গর্ন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও ইউপি সদস্যগন গ্রাম্যশালিস বৈঠকে বসলে বিবাদী সাজু ১লক্ষ ৪০হাজার টাকা দেওয়ার কথা স্বীকার করলেও পরবর্তীতে তাঁরা (বিবাদীপক্ষ) উক্ত শালিস মানে নাই মর্মে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে। গাবতলী থানার এসআই খোরশেদ আলম এ ঘটনায় অভিযোগ দায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অপরদিকে, (দূর্গাহাটা ইউনিয়নের সচেতনমহল ও এলাকাবাসী) জানান, দূর্গাহাটা ইউনিয়নে টাউট ও বাটপারদের সংখ্যা দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে ইউনিয়নের অসহায় মানুষগুলো নানাভাবে হয়রানী ও অর্থিকভাবে ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে। গ্রাম্য শালিস বৈঠকের নামে চলছে ‘শালিসী অর্থ বানিজ্য’। যেকোন ঘটনা বা অভিযোগ হলেই তাঁরা কোন না কোন পক্ষ নিয়ে বিপদগামী পরিবারের পাশে দাড়িয়ে মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে তাদের কে নানাভাবে প্রতারনা-হয়রানী ও ক্ষতিগ্রস্থ করছে। ফলে ওই ইউনিয়নে অপ্রীতিকর ঘটনা বেড়েই চলছে।

Please Share This Post in Your Social Media

https://twitter.com/WDeshersangbad


বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

https://www.facebook.com/Dsangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone