বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:২১ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
ছাদে অসাধারন আঙ্গুর গাছের বাগান === যে কারনে গরুর খামার করে সফল হতে পারছেন না নতুন খামারিরা ** চন্দন গাছের টুকিটাকি- বীজ থেকে চারা উত্তোলন আর যত্নাদি ** “মাঠ পর্যায় ইউ‌পি নির্বাচনী ধারাবা‌হিক অনুসন্ধানী প্রতি‌বেদন” (পর্ব-০১) জার্মান আওয়ামী লীগ তিব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ চাকরির আট বছরেই ১৩ কোটি টাকার মালিক বিআরটিএ কর্মকর্তা ২২ বছর বয়সের মধ্যে বিয়ে না হলে মে’য়েদের ৭ টি সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় মেয়েদের পাঁচটি অঙ্গ বড় হলে স্বামীরা সৌভাগ্যবান হয়ে থাকে কি করলে মেয়েরা কখনো ছেলেদের ভুলতে পারবে না! গোসলের সময় বা ও’য়াশরুমে গিয়ে মেয়েরা কী চিন্তা করে? প্রেমের ফাঁদে ফেলে অপরাধীকে ধরলেন পুলিশের এসআই! ভাই-ভাবি ও তাদের দুই সন্তানকে খু’নের রায়ে ছোট ভাইকে মৃ’ত্যু’দণ্ড আওয়ামী লীগের সম্ভবনাময় গোছানো মাঠ নস্টের অভিযোগ তানোরের বাঁধাইড় ইউপিতে আলোচনা সভা শিক্ষার্থীদের ডিজিটাল সিটিজেন হিসেবে গড়ে তুলতে শিক্ষকদেরই অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে 

ডেঙ্গু নিয়ে দেশবাসীর সঙ্গে আমরাও গভীরভাবে উদ্বিগ্ন

সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, ‘ডেঙ্গু মোকাবিলায় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী এবং মেয়রদের উচিৎ ছিল, তড়িৎ গতিতে পদক্ষেপ নেওয়া। কিন্তু বাস্তবে তা দেখা যায়নি। ফলে সমগ্র দেশে ডেঙ্গু রোগী ও আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

বিবৃতিতে ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘ডেঙ্গু রোগ যে হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে সমগ্র দেশবাসীর সঙ্গে আমরাও গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। সরকারি স্বাস্থ্য বুলেটিনে বলা হয়েছিল, মে মাস থেকে ডেঙ্গুর বিস্তার ঘটবে এবং প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা না নিলে পরবর্তী মাসগুলোতে তা ভয়াবহ রূপ ধারণ করবে। সম্প্রতি গবেষণায় বলা হয়েছে, ঢাকা ইজ সিটিং অন এ ডেঙ্গু টাইমবোম্ব। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলছেন, ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে।’

দেশের প্রবীণ এই আইনজ্ঞ বলেন, ‘সরকারি তথ্যমতে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বর্তমানে ৩০ হাজারের বেশি। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী (স্বাস্থ্যমন্ত্রী) এবং মেয়রদের (ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের দুই) দায়িত্ব ছিল তড়িৎ গতিতে পদক্ষেপ গ্রহণ। কিন্তু বাস্তবে তা দেখা যায়নি।

ডেঙ্গু মোকাবিলায় ওষুধে ভেজাল ও ক্রয়ে দুর্নীতি রয়েছে দাবি করে দেশের অন্যতম এ  সংবিধান প্রণেতা বলেন, জনগণ লক্ষ্য করছে, ওষুধে ভেজাল, ক্রয়ে দুর্নীতি এবং ফগ মেশিনে (ডেঙ্গু মশা মারার ঔষধ) স্প্রে করার পদ্ধতিগত ত্রুটি এবং ফগম্যানদের যথাযথ প্রশিক্ষণও নেই। ডেঙ্গুর ব্যাপকতায় রোগীদের জন্য রক্তের চাহিদা বেড়েছে, ব্লাড ব্যাংকগুলোতে সংকট দেখা দিয়েছে। ডেঙ্গু শনাক্তকরণের কিটও চাহিদা মতো পাওয়া যায়নি।

কামাল হোসেন আরও বলেন, ডেঙ্গু মোকাবিলায় জনগণকে আরও বেশি সচেতন করার লক্ষ্যে সরকারি ও বেসরকারিভাবে পদক্ষেপ গ্রহণ করা জরুরি। এমন জাতীয় দুর্যোগে প্রয়োজন ছিল সমন্বিত জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় সংশ্লিষ্ট সকল মন্ত্রণালয় ও জনগণকে সম্পৃক্ত করা, কিন্তু সেই বাস্তব অবস্থা এখনো দৃশ্যমান নয়।

এ সময়, দেশে স্থায়ীভাবে ডেঙ্গু রোগের ভয়াবহতা নিরসনে অবিলম্বে বিশেষজ্ঞ পর্যায়ে স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা এবং সরকারের প্রতি কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

https://twitter.com/WDeshersangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

All rights reserved © deshersangbad.com 2011-2021
Design And Developed By Freelancer Zone